পূর্ণিমাকে বিয়ে করার কথা গুজব: আকবর

পূর্ণিমাকে বিয়ে করার কথা গুজব: আকবর
March 14 13:42 2017 Print This Article

bbc71news – যশোর শহরের অলিগলিতে রিকশা চালাতেন আকবর। খুলনার পাইকগাছায় জন্ম হলেও আকবরের বেড়ে ওঠা যশোরেই। সেখানে টুকটাক গান করতেন। তবে গান নিয়ে ছোটবেলা থেকে হাতেখড়ি ছিল না। আকবরের ভরাট কণ্ঠের গানের কদর ছিল যশোর শহরে। সে কারণে স্টেজ শো হলে ডাক পেতেন।

২০০৩ সালে যশোর এম এম কলেজের একটি অনুষ্ঠানে গান গেয়েছিলেন আকবর। সেবার বাগেরহাটের এক ভদ্রলোক আকবরের গান শুনে মুগ্ধ হয়েছিলেন। তারপর তিনি জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’তে চিঠি লেখেন আকবরকে নিয়ে। এরপর ইত্যাদির টিম আকবরের সঙ্গে যোগাযোগ করে। সেবছরই ইত্যাদিতে ‘একদিন পাখি উড়ে যাবে যে আকাশে, ফিরবে না সেতো আর কারও আকাশে’- কিশোর কুমারের এ গানটি গেয়ে রাতারাতি পরিচিতি পেয়ে যান আকবর।

এরপর আকবরকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তিনি গায়ক পরিচয়ে পরিচিতি পান। বর্তমানে আকবর রয়েছেন আলোচনার বাইরে। কোনো রকম প্রচারণাতেই দেখা যায় না তাকে। জাগো নিউজের বিনোদন বিভাগ তার সন্ধান করছেন শুনে বেশ অবাক হলেন। আলাপকালে আকবর বলেন, ‘কিছুদিন আগে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছি। জন্ডিস, টিবি ছাড়া আরও নানা রোগ একসঙ্গে আক্রমণ করেছিল। আল্লাহপাকের রহমত ছাড়া বাঁচতে পারতাম না।’

তিনি দু:খের দিনের বন্ধুদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ‘আমার ওই দুঃসময়ে সবসময় ছায়ার মতো পাশে থেকেছেন হানিফ সংকেত স্যার। উনি আমাকে চিকিৎসা করিয়েছেন দেশের বাইরে নিয়ে। তার ঋণ আমি শোধ করতে পারব না।’

আকবর বলেন, ‘হানিফ সংকেত স্যারের কল্যাণে ২০০৬ ও ’০৯ সালে আমেরিকা, ২০০৭ সালে অস্ট্রেলিয়া, ২০০৮ সালে লন্ডনে শো করেছি। সবসময় স্যার (হানিফ সংকেত) আমাকে আগলে রেখেছিলেন। এখনও সন্তানের মতো ভালোবাসেন আমাকে। একজনমে উনার মতো মানুষ পেয়েছিলাম বলে আমি সত্যি সৌভাগ্যবান।’

‘ইত্যাদি’তে গান করে তারকা বনে যাওয়া আকবরের কণ্ঠে ‘একদিন পাখি উড়ে’, ‘হাত পাখার বাতাসে’, ‘হঠাৎ দেখা, ‘ইচ্ছে করে’, ‘বেদনার মেঘ’, ‘চাঁদ রূপসী’ নামের ছয়টি অ্যালবাম বাজারে আসে। এরমধ্যে তুমুল জনপ্রিয়তা পায় ‘হাত পাখার বাতাসে’ অ্যালবামের এই টাইটেল গানটি। সেসময় আকবরকে নিয়ে তুমুল আলোচনা হতো। তাছাড়া ‘কঠিন পুরুষ’ ছবির একটি গানে কণ্ঠ দেন আকবর। যে গানটিতে ঠোঁট মিলিয়েছিলেন প্রয়াত নায়ক মান্না।

এদিকে আকবরের গাওয়া ‘হাতপাখার বাতাসে’ গানটি যেমন তাকে নিয়ে গিয়েছিল জনপ্রিয়তার নান্দনিক উচ্চতায় তেমনি এই গানটিই তাকে উত্থানের গল্প শোনার আগেই পতনের দিকে ধাবিত করেছিল। আকবরের এমনই ধারণা। গানটির অডিও প্রকাশের পর এর ভিডিও প্রকাশও হয়েছিলো। সেখানে আকবরের সঙ্গে মডেল হয়েছিলেন চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। সেসময় চাউর হয়েছিল আকবর পূর্ণিমাকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। এতে পূর্ণিমা রেগে গিয়েছিলেন এই গায়কের উপর। এই ঘটনায় আকবর সমালোচিত হন। কমে যেতে থাকে তার গ্রহণযোগ্যতা।

কিন্তু এই কথাটুকু কতটুকু সত্যি? আকবর বলেন, ‘এটা সম্পূর্ণ মিথ্যে কথা। আমি কখনই নায়িকা পূর্ণিমা ম্যাডামকে বিয়ে করতে চাইনি। আমার গানটি করার সময় ম্যাডাম তখন সুপারহিট নায়িকা ছিলেন। উনাকে যে আমার গানে পেয়েছিলাম এটাই আমার পরম পাওয়া। উনি অনেক ভালো মানুষ। আমার মতো অখ্যাত এক গায়কের সঙ্গে মডেল হয়েছিলেন।

তার তারকাখ্যাতির স্পর্শে আমি অনেকদূর এসেছি। সবাই আমাকে ভালবেসেছিল। কিন্তু কিছু মানুষ যারা আমাকে হিংসে করতো, যারা আমার উত্থান মেনে নিতে পারেনি তারা আমার সঙ্গে পূর্ণিমা ম্যাডামকে জড়িয়ে নানা কটু কথা ও গুজব ছড়ায়। আমি খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। আরও বেশি কষ্টের কারণ হল অধিকাংশ মানুষই এই গুজব বিশ্বাস করেছিলেন। আমার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলেন। আমার মত মানুষের একটা দোষ হাজার দোষের সমান। কেউ যাচাই বাছাই করার ধৈর্য রাখে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘যা হবার তাই হয়েছে। আমি এসব নিয়ে দু:খ করি না। পূর্ণিমা ম্যাডাম যদি এইসব গুজবকে মিথ্যে মনে করেন তাই হবে আমার জন্য শান্তির।’

বর্তমানে কীভাবে দিন কাটছে আপনার? আকবর বলেন, ‘আমি এখন খুব ভালো আছি। পুরোপুরি সুস্থ আছি। আমার রোজগারের উৎস হচ্ছে স্টেজ শো। আগামী ১৫ তারিখ মানিকগঞ্জের সাঁটুরিয়াতে, ২৫ তারিখ চাঁদপুরে শো আছে। এছাড়া আরও কয়েক জেলায় গানের কথাবার্তা চলছে। গেল ডিসেম্বরে যশোরে ‘ইত্যাদি’ প্রচার হওয়ায় সেই পর্বে একটি গান গেয়েছিলাম। তারপর আবার নতুন করে আমি কাজ পাচ্ছি।’

স্ত্রী ও এক কন্যা সন্তান নিয়ে ঢাকাতেই আছেন আকবর। তার মেয়ে প্রথম শ্রেণিতে পড়ছে।  আকবর বলেন, ‘আজ আমি যা কিছু করেছি বা হয়েছি সবটুকুর অবদান হানিফ সংকেত স্যারের। উনি আমাকে নতুনভাবে সৃষ্টি করেছেন। আমি এখন মোটামুটি সচ্ছল। আগামীতে সবাই চাইলে আমি আবার সিনেমায় গান গাইবো। সবার সহযোগিতা চাই। যতদিন বাঁচি গান নিয়ে থাকতে চাই।’

বর্তমানে আকবর রয়েছেন সাতক্ষীরায়। সেখানে তিনি ‘ইত্যাদি’র নতুন পর্বের জন্য গান করবেন।

view more articles

About Article Author

write a comment

0 Comments

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Add a Comment

Your data will be safe! Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.
All fields are required.