বাগেরহাট সুপেয় পানির সংকট কাটেনি:বৃষ্টি ও পুকুরই ভরসা

বাগেরহাট  সুপেয় পানির সংকট কাটেনি:বৃষ্টি ও পুকুরই ভরসা
March 21 11:02 2017 Print This Article

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট অফিস : বাগেরহাটের দক্ষিণাঞ্চলীয় অবহেলিত জনপথ হিসেবে চিহ্নিত মোরেলগঞ্জ উপজেলায় লবনাক্ততার কারনে সুপেয় পানির সংকট কাটেনি: বৃষ্টি ও পুকুরই একমাত্র ভরসা। শতকরা ৭৫ ভাগ মানুষ সুপেয় পানি পান করতে পারছেনা। এলাকার মানুষকে সুপেয় পানির অভাবে বৃষ্টি, পুকুর ও খালের পানির উপর নির্ভর করতে হয়।
১টি পৌরসভা ও ১৬ ইউনিয়নের ১৮৩টি গ্রাম ও ৫০টি হাটবাজারের সমন্বয়ে দেশের ২য় বৃহত্তম এ উপজেলা গঠিত । এখানে ৪৪০ বর্গ কিলোমিটর আয়তনে ৪ লক্ষাধিক লোকের বসবাস।  উপজেলায় সরকারি হিসেবে স্থাপিত নলকূপের সংখ্যা ৪৪ হাজার ৭৩৮ টি। এসব নলকূপ ব্যবস্থাপনার অভাবে অধিকাংশ অকেজো অবস্থায় পড়ে আছে। অনেক নলকূপের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যাবেনা। যে সব নলকূপ রয়েছে সেগুলোর পানি লবনাক্ততা কারনে পানের অযোগ্য। আবার অনেক নলকূপে রয়েছে আর্সেনিক।

আর এ লবনাক্তার কারণে ৯০ শতাংশ মানুষের জীবন-জীবিকা বিপন্ন। প্রাকৃতিক জলোচ্ছ¡াসের ফলে মোরেলগঞ্জের ৩০ ভাগ পরিবারের স্যানিটেশন অবকাঠামো বিনষ্ট হওয়ায় স্যানিটেশন সুবিধা বঞ্চিত। যার কারণে এখানকার ৫০ ভাগ মানুষ বিভিন্ন ধরণের স্বাস্থ্যগত সম্মুখীন হচ্ছে। পাশাপাশি মাটির লবনাক্ততার কারনে  ৭৫ ভাগ কৃষি জমিতে ফসল উৎপাদন সম্ভব হচ্ছেনা। সরকারি বেসরকারিভাবে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নিরাাপদ পানির জন্য পন্ড সেন্ড ফিল্টার বা পিএসএফ স্থাপন করা হলেও তার অধিকাংশ অকেজো।
সরেজমিনে অত্র উপজেলায় সুপেয় পানির সমস্যা ও ৬টি ইউনিয়ন মোরেলগঞ্জসদর, বারইখালী, নিশানবাড়িয়া, বহরবুনিয়া, জিউধারা, খাউলিয়ার  সুপেয় পানির সমস্যরা বাস্তব চিত্র মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করেছে বেসকরারি সংস্থা র্ডপ মোরেলগঞ্জ। উপস্থিত ছিলেন র্ডপ’র প্রোগ্রাম সমন্বয়কারী আমির খসরু। এতে আরো জানানো হয়, এ ৬ ইউনিয়নে নিরাপদ পানির জন্য সরকারীভাবে ২৫৩টি পন্ড সেন্ড ফিল্টার-পিএসএফ স্থাপন করা হলেও বর্তমানে ১০৬টি অকেজো হয়ে পড়ে আছে। নলক‚পের পানি পান করা না গেলেও এই ৬টি ইউনিয়নে ১৩৬৮টি নলক‚পের মধ্যে বর্তমানে ৩৯৬টি অকেজ অবস্থায় পড়ে আছে। নিরাপদ পানিরজন্য স্থানীয়রা দূর দূরান্ত (১-৩ কি.মি.) থেকে পুকুরের পানি সংগ্রহ করে পান করছে।

আবার কখনো দেখা যাচ্ছে উপজেলা পরিষদের মধ্যে একটি পুকুর ও থানা পুকুরের পানি সংগ্রহের জন্য সকাল থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত নারী পুরুষ ভ্যান ও কলসি নিয়ে দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায় একটু সুপেয় পানির জন্য। জন সাধারণের একটি দাবি সংশ্লিষ্টি কর্মকর্তাদের কাছে নতুন পুকুর বা পুরাতন পুকুর খনন করে পৌরসভা সহ মোরেলগঞ্জ উপজেলা জনসাধারণের প্রানের দাবি একটু সুপেয় পানির ব্যবস্থা করে দেওয়া।

view more articles

About Article Author

write a comment

0 Comments

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Add a Comment

Your data will be safe! Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.
All fields are required.