সাহিত্যিক জুবাইদা গুলশান আরার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ

সাহিত্যিক জুবাইদা গুলশান আরার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ
March 22 14:51 2017

আনজুমান আরা শিল্পী-খ্যাতিমান কথাসাহিত্যিক জুবাইদা গুলশান আরা গত ১৯ মার্চ ২০১৭ রোববার বেলা আড়াইটায় রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল­াহে ওয়া ইন্না ইলাহে রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। জুবাইদা গুলশান আরার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন আন্তর্জাতিক সাহিত্য সংগঠন পিইএন (পেন)-এর বাংলাদেশ সেন্টারের সভাপতি ও একুশে পদক প্রাপ্ত কথাসাহিত্যিক ফরিদা হোসেন ও সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফরিদা বেগম মনিসহ সংগঠনের বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি। উলে­খ্য, জুবাইদা গুলশান আরা পিইএন (পেন)-এর বাংলাদেশ সেন্টারের প্রাক্তন সদস্য ছিলেন।

সংগঠনটির পক্ষ থেকে দেয়া এক শোকবার্তায় তারা বলেন, জুবাইদা গুলশান আরা একজন মননশীল লেখক হিসেবে নারীদের অগ্রগতির পক্ষে তার শাণিত লেখনি এবং সাহিত্য, সমাজ ও নারী বিষয়ক বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত থেকে নারীদের জাগরণের পক্ষে কাজ করে যে সুনাম অর্জন করেছেন তা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। এছাড়া শিশু-কিশোরদের জন্য শিশুতোষ রচনাকেও তিনি প্রসিদ্ধ লাভ করেছেন। একজন শিক্ষক হিসেবেও তিনি তাঁর বহু ছাত্রছাত্রীকে গড়ে তুলেছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে দেশ একজন প্রতিভাবান ও গুণী সাহিত্যিককে হারালো। তাঁর পরিবারবর্গের প্রতি আমরা গভীর সমব্যথী। আমরা জুবাইদা গুলশান আরার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারবগের্র প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

জুবাইদা গুলশান আরা গত শতকের ষাটের দশক থেকে লেখালেখির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। সাহিত্যচর্চার জন্য ২০০৫ সালে সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদকে ভ‚ষিত হন তিনি। এছাড়া জসীম উদ্দীন পদকসহ আরও বিভিন্ন পদকে ভ‚ষিত হন তিনি। কবিতা, গল্প, উপন্যাস ও নাটকসহ সাহিত্যের নানা শাখায় সফল বিচরণ ছিল তাঁর। উপন্যাস, ছোট গল্প, নাটক, শিশুতোষ ছড়া মিলিয়ে তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৫০-এর বেশি। শিশুদের জন্য প্রচুর ছড়া, কবিতা ছাড়াও তিনি বহু শিশুতোষ রচনা রেখে গেছেন।

তিনি বাংলাদেশ লেখিকা সংঘের ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। জাতীয় মহিলা সংস্থা, এশিয়াটিক সোসাইটি, বাংলা একাডেমি, পেন বাংলাদেশ, ঢাকা লেডিস ক্লাব, বাংলাদেশ মহিলা সমিতি প্রভৃতি সংস্থার সদস্য ছিলেন তিনি। সাহিত্য, সমাজ এবং নারীবিষয়ক বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত থেকে তিনি নারীদের অগ্রগতি এবং নারী জাগরণের পক্ষে কাজ করেছেন।

write a comment

0 Comments

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Add a Comment

Your data will be safe! Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.
All fields are required.